কোরআনুল কারীম থেকে মুখ ফিরিয়ে নেওয়া

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহীম

“যে ব্যক্তিকে তার পালনকর্তার আয়াতসমূহ (আল-কোরআন) দ্বারা উপদেশ দান করা হয়, অতঃপর সে তা থেকে মুখ ফিরিয়ে নেয়, তার চেয়ে জালেম আর কে? আমি জালেমদের কে শাস্তি দিব। (সূরা-সেজদাহ: ২২)

প্রথম যখন এ আয়াত শুনেছিলাম/পড়েছিলাম তখন ভাবতাম কোন মুসলমান এমন হতে পারে না, যা কে কোরআনের আয়াত দিয়ে বলার পরও নিজের হুজুর, দল, মত বাচাঁনোর জন্য মুখ ফিরিয়ে নিবে। কিন্তু বাস্তবে এখন দেখি, এমন মুসলমানের অভাব নাই। তাও আবার, দাড়ি, টুপি, পাঞ্জাবী, কোর্তা, জোব্বাওয়ালা, পরিপূর্ন পর্দাশীল মহিলা, পাঁচ ওয়াক্ত ও তাহাজ্জুদ পড়া নামাজি, কোরআনের হাফেজ/হাফেজা ইত্যাদি। আচ্ছা, এমন আমল দ্বারি ব্যক্তি কি কখনও মুসলমান হতে পারে?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *